সেনা অফিসার হওয়া হলো না রাজিবের


, | Published: 04:39 PM, August 02, 2018

IMG

আব্দুল করিম রাজিব। স্বপ্ন ছিল সেনাবাহিনীতে যোগ দেয়ার। ক্যান্টনমেন্ট কলেজে ভর্তির পর মা এবং ছোট ভাইকে বলেছিল তার স্বপ্নের কথা। চাকুরির স্বপ্ন পূরণের আগেই তাকে বিদায় নিতে হলো পৃথিবী থেকে।

কখনো পড়ার ঘর, আবার কখনো বা শোবার ঘর। মা মহিমা বেগমকে খুজে ফেরেন ছেলের স্মৃতি।

স্বামী ক্যান্সারে মারা গেছে প্রায একযুগ আগে। অভাবে সংসার। নিজে থাকেন নোয়াখালীর হাতিয়া বোনের বাড়িতে।নিকটতাত্বীয়দের সাহায্য সহযোগীতায় দুই ছেলেকে ঢাকায় পড়াতেন। ছেলে লেখাপড়া শিখে মায়ের মুখে হাসি ফোটাবে।কিন্তু ঘাতক চালনের তা আর হতে দিল না।

রাজিবের মা মহিমা বেগমকে বুধবার সকালে নোয়াখালী থেকে ঢাকায় আনা হয়।  তবে গ্রামের সহজ সরল এই মানুষটি আন্দোলনের অতোকিছু বুঝতে চান না। তার দাবি এই অকাল মৃত্যুর মিছিল বন্ধ হোক।

বিমানবন্দর এলাকার আশকোনায় খালাতো ভাইয়ের বাসায় থেকে লেখাপড়া করতো আব্দুল করিম রাজিব। বিমানবন্দর রোডে রাজিব এবং মিমের মৃত্যু আবারো প্রমাণ করলো কতটা অনিরাপদ জীবন।