এবারই হবে ৭ হাজার ডাক্তার নিয়োগ: মন্ত্রী


স্বাস্থ্য প্রতিবেদক,সেন্ট্রাল ডেস্ক | Published: 02:59 PM, August 07, 2018

IMG

বিশেষ বিসিএসে পাঁচ হাজার ডাক্তার নেয়ার ঘোষণা দেয়া হলেও আরো দুই হাজার বাড়িয়ে সাত হাজার ডাক্তার নেয়া হবে। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, সরকারি স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানগুলো জনবল সঙ্কটে ভুগছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে এখনো ৪০ হাজার পদ খালি আছে। এই পদগুলো পূরণ করার চেষ্টা করছি। 

সোমবার বিকেলে রাজধানীর ব্র্যাক সেন্টারে আয়োজিত ‘টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে জাতীয় যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির সাফল্য ও প্রতিবন্ধকতা; আসন্ন জাতিসঙ্ঘের উচ্চপর্যায়ের সভায় জাতীয় অঙ্গীকার’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্য দিতে গিয়ে এসব কথা বলেন।  

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা: এম এ ফয়েজ, জাতীয় যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির লাইন ডিরেক্টর অধ্যাপক ডা: মো: সামিউল ইসলাম, ন্যাশনাল অ্যান্টি টিউবারকিউলোসিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (নাটাব) প্রেসিডেন্ট মোজাফফর হোসেন পল্টু, দৈনিক ইত্তেফাকের সম্পাদক তাসমিমা হোসেন, ব্র্যাকের কমিউনিকেবল ডিজিজেস, ওয়াশ ও ডিএমসিসি কর্মসূচির পরিচালক ড. মো: আকরামুল ইসলামসহ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা ও বেসরকারি সংস্থাগুলোর প্রতিনিধিরা। 

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ২০৩০ সাল নাগাদ টেকসই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে (এসডিজি) যক্ষ্মারোগের মৃত্যুর হার ৯০ শতাংশ কমিয়ে আনার কথা বললেও আমি আশা করছি আগামী ছয় বছরের মধ্যে আমরা সে লক্ষ্যে পৌঁছতে পারব। তিনি চিকিৎসাক্ষেত্রে জনবল সঙ্কটের কথা তুলে ধরে বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে ‘আমলাতান্ত্রিক জটিলতার’ কারণে ৪০ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগপ্রক্রিয়া স্থগিত ছিল। আমি অর্থ ও সংস্থাপন মন্ত্রণালয়কে সমন্বয় করে এ সমস্যার সমাধান করেছি এবং ৪০ হাজার কর্মী নিয়োগের ব্যবস্থা করেছি। যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণে আরো বেশি সচেতনতা গড়ে তুলতে গণমাধ্যমকর্মীদের আহবান জানান মন্ত্রী। 

অধ্যাপক ডা: মো: সামিউল ইসলাম বলেন, যক্ষ্মা রোগ নিয়ন্ত্রণে আমাদের দু’টি পর্যায়ে বিশেষভাবে কাজ করতে হবে। একটি হচ্ছে যক্ষ্মা শনাক্তকরণ, অন্যটি হচ্ছে এর প্রতিরোধী ব্যবস্থা। 

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জাতীয় যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির ন্যাশনাল প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর ডা: রুপালী শিশির বানু। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ব্র্যাক টিবি কন্ট্রোল প্রোগ্রামের প্রোগ্রাম ম্যানেজার সরদার মুনিম ইবনে মহসিন।