কয়লা দুর্নীতি: বড়পুকুরিয়ায় ‘আপাতত’ একটি ইউনিট চালু


দিনাজপুর প্রতিনিধি,কান্ট্রি ডেস্ক | Published: 09:52 PM, August 20, 2018

IMG

প্রায় এক মাস বন্ধ থাকার পর দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রের তিনটি ইউনিটের মধ্যে একটি ইউনিটের উৎপাদন আজ, সোমবার (২০ আগষ্ট) শুরু হয়েছে।


এতে করে কেন্দ্রটির মোট ৫২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতার মধ্যে মাত্র ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে।


কয়লার চরম সঙ্কট থাকলেও ঈদুল আজহায় উত্তরাঞ্চলের বিদ্যুৎ পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক করতেই এই ইউনিটটি চালু করা হয়েছে।


বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রের ব্যবস্থাপক (সংরক্ষণ) প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান গণমাধ্যমকে জানান, ১২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতার এই ইউনিট থেকে একশ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে। কয়লা সংকট থাকার কারণে উৎপাদন সক্ষমতার পুরোটা পাওয়া যাবে না।


তিনি আরও জানান, বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি থেকে এখন দিনে একশ থেকে পাঁচশ টন কয়লা পাওয়া যাচ্ছে। তা মজুত করে রাখা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত ৫ হাজার টন কয়লার মজুত আছে। এই পরিমাণ কয়লা দিয়ে প্রায় ৪ দিন ওই একটি ইউনিটের বিদ্যুতের উৎপাদন চালু রাখা সম্ভব হবে। আমরা ঈদের ছুটিতে এই ইউনিটটি চালু রাখার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি।

১২৫ মেগাওয়াটের ইউনিটটি চালু রাখতে হলে দৈনিক ১২শ টন কয়লার প্রয়োজন।


বড়পুকুরিয়া বিদ্যুৎকেন্দ্রের তিনটি ইউনিটের মোট উৎপাদন ক্ষমতা ৫২৫ মেগাওয়াট। এর মধ্যে একটি ইউনিট নষ্ট রয়েছে । আর ২৭৫ মেগাওয়াটের একটি ইউনিট উৎপাদনের উপযোগী থাকলেও কয়লা সংকটের কারণে চালু করা যাচ্ছে না। ২৭৫ মেগাওয়াটের ইউনিটটি চালু করতে দৈনিক ২৮শ টন কয়লা প্রয়োজন।


বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির মুখে স্থাপিত দেশের একমাত্র কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রটি কয়লা সংকটের কারণে গত ২২ জুলাই রাতে বন্ধ করে দেওয়া হয়। এর আগে এই খনিতে সাগরচুরির মতো দূর্নীতির খবর প্রকাশ পায়। এরপর কয়লা খনির শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তদন্ত করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।