ঢাবি’র ছাত্রী হল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী


শিক্ষা প্রতিবেদক,সেন্ট্রাল ডেস্ক | Published: 02:03 PM, August 30, 2018

IMG

ছাত্রীদের আবাসন সংকট নিরসন এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণকে স্মরণীয় করে রাখতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) রোকেয়া হল প্রাঙ্গণে নির্মান করা হয়েছে ‘৭ মার্চ ভবন’। এই ভবনটি উদ্বোধন করতে আগামী ১ সেপ্টেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


প্রধানমন্ত্রী আগমনের খবরে ক্যাম্পাসে আনন্দমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। পুরো ক্যাম্পান জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা। বসানো হচ্ছে সিসিটিভি। ক্যাম্পাসের বিভিন্ন হল ও অন্যান্য ববন সাজানো হচ্ছে।


ছাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ‘৭ মার্চ ভবন’ উদ্বোধন করতে হল প্রাঙ্গণে প্রধানমন্ত্রী যাওয়ার প্রেক্ষাপটে আবাসিক শিক্ষকরা তাদের কিছু নির্দেশনা দিয়েছেন মেনে চলার জন্য।


ওইদিন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নতুন ভবনের ফলক উন্মোচন করবেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর ভবন প্রাঙ্গণে স্থাপিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য এবং ৫তলা ভবনে নির্মিত ৭মার্চ জাদুঘর পরিদর্শন করবেন তিনি। সবশেষে নতুন ভবনের মিলনায়তনে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন।


আলোচনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান এবং স্বাগত বক্তব্য রাখবেন রোকেয়া হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক জিনাত হুদা।


২০১২ সালে ভবনটির ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোকেয়া হল প্রাঙ্গণে নবনির্মিত অত্যাধুনিক এ ভবনটি একটি সম্মিলিত ভবন। এরমধ্যে ১১তলা ও ৫তলা বিশিষ্ট দুটি ভবন করা হয়েছে। ১১তলা ভবনে প্রায় এক হাজার ছাত্রীর আবাসন ব্যবস্থা আছে। আর ৫তলা ভবনে জাদুঘর, রিডিং রুম, অডিটোরিয়াম ও টেলিভিশন কক্ষ রাখা হয়েছে।


ভবন ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিটি কক্ষে চারজন ছাত্রীর জন্য পৃথক চারটি বিছানা আছে। কয়েকটি কক্ষে গ্যাস সংযোগসহ রান্নাঘর ও বড় আকারের বেসিন রাখা হয়েছে। আর গোসলের জায়গা ও বাথরুমে লাগানো হয়েছে দৃষ্টিনন্দন টাইলস।


ভবন প্রাঙ্গণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য এবং ৫তলা ভবনের দেয়ালে সাটানো আছে বঙ্গবন্ধুর সেই ডান হাতের তর্জনী আঙ্গুল তোলা ৭ মার্চের ভাষণের প্রতিচ্ছবি।