আকাশবীণা আকাশে উড়বে ৫ সেপ্টেম্বর


অর্থনৈতিক প্রতিবেদক,অর্থনীতি ডেস্ক | Published: 02:31 PM, September 01, 2018

IMG

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সকে আধুনিক করতে আনা হয়েছে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সম্বলিত উড়োজাহাজ ড্রিমলাইনার বোয়িং-৭৮৭। বাংলাদেশ এর নাম দিয়েছে আকাশবীণা। বিমানটির প্রথম বাণিজ্যিক ফ্লাইট আজ ১ সেপ্টেম্বর হওয়ার কথা থাকলেও তা পেছানো হয়েছে। এটি উড়বে আগামী ৫ সেপ্টেম্বর বুধবার।


আজ শনিবার ( ১ সেপ্টেম্বর) বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মহাব্যবস্থাপক ( জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ গণমাধ্যমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সম্বলিত বোয়িং-৭৮৭ আগামী ৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় নির্ধারিত গন্তব্য মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে যাবে। এটিই হবে আকাশবীণার প্রথম বাণিজ্যিক ফ্লাইট। তবে এর আগে ওইদিন দুপুর ১২টায় ড্রিমলাইনেরর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


এর আগে গত ১৯ আগস্ট বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান এয়ারভাইস মার্শাল (অব.) ইনামুল বারীর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলের বোয়িং কোম্পানির কার্যালয় থেকে বিমানটি নিয়ে আসেন। এ নিয়ে বিমানের বহরে উড়োজাহজের সংখ্যা দাঁড়ায় ১৫টিতে।


গত বুধবার ( ২৯ আগস্ট) ড্রিমলাইনারের প্রথম পরীক্ষামূলক ফ্লাইট ঢাকা থেকে কলকাতায় যায়। বোয়িংয়ের ক্যাপ্টেন রিচার্ড এম ডেনটন ও বিমানের জ্যেষ্ঠ পাইলট ক্যাপ্টেন ফজল আহমেদ ফ্লাইটটি পরিচালনা করেন। প্রথম পরীক্ষামূলক ফ্লাইটটিতে কোনো সমস্যা পাওয়া যায়নি।


বিমান সূত্রে জানা গেছে, আকাশবীণায় আসন সংখ্যা ২৭১টি। এর মধ্যে বিজনেস ক্লাস ২৪টি আর ২৪৭টি ইকোনমি ক্লাস। টানা ১৬ ঘণ্টা উড়তে সক্ষম এই ড্রিমলাইনার চালাতে অন্যান্য বিমানের তুলনায় ২০ শতাংশ কম জ্বালানি লাগবে। এটি ঘণ্টায় ৬৫০ মাইল বেগে উড়তে সক্ষম। 

ড্রিমলাইনার পরিচালনার জন্য সিঙ্গাপুর থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন বিমানের ১৪ জন পাইলট। ড্রিমলাইনার রক্ষণাবেক্ষণের জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে প্রকৌশল বিভাগের ১১২ জনকে। এছাড়া কেবিন ক্রুদের বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।