‘স্বাধীনতা বিরোধীদের পুনর্বাসনই ছিল বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মূল উদ্দেশ্য’


, | Published: 02:41 PM, September 01, 2018

IMG

স্বাধীনতা বিরোধীদের পুনর্বাসনই ছিল বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মূল উদ্দেশ্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হলে ৭ মার্চ ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। পরিকল্পিতভাবে দেশকে এগিয়ে নেয়ার কথা জানিয়ে তিনি বলেন: শিক্ষার মানোন্নয়নে কাজ করছে সরকার। এজন্য শিক্ষাখাতে বরাদ্দকে ব্যয় নয়, বরং তা বিনিয়োগ বলে মনে করে তাঁর সরকার। তিনি বলেন, ক্ষমতা ভোগের জন্য নয়, জনগণের ভাগ্য উন্নয়নই লক্ষ্য।

বঙ্গবন্ধুর ৭মার্চের ভাষণে উদ্বুদ্ধ হয়ে ৯ মাসের মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীনতা এনেছিল বাঙালী। জাতীর জনকের ঐতিহাসিক সেই ভাষনের দিনটি স্মরণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হলে নির্মাণ করা হলো ৭ মার্চ ভবন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাখা বক্তব্যে প্রাধানমন্ত্রী বলেন, ৭ মার্চ বাঙালীর ইতিহাস- ঐতিহ্যের অবিচ্ছেদ্য অংশ। যার স্বীকৃতি মিলেছে ইউনেস্কো থেকেও।

বঙ্গববন্ধুর হত্যাকন্ডের ঘটনা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতা বিরোধীদের পুনর্বাসনই ছিল এর মূল উদ্দেশ্য। ক্ষমতা দখলকারীরা ছাড়া সবাই তখন সব ধরনের অধিকার থেকে বঞ্চিত ছিল।

তবে বর্তমান সরকার সার্বিকভাবে দেশের উন্নয়ন করছে বলে জানান তিনি। লক্ষ্য উন্নয়নের সুফল সবার কাছে পৌছে দেয়া। তিনি বলেন, ক্ষমতা ভোগের নয়। জনগণের ভাগ্য উন্নয়নই আমাদের লক্ষ্য।

এসময়, দেশের শিক্ষার্থীদের বিশ্বমানের যোগ্যতা অর্জনের পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী। এজন্য সরকারের পক্ষ থেকে নেয়া পদক্ষেপ তুলে ধরনে তিনি। বলেন, শিক্ষাকে বহুমূখীকরনে কাজ করছে তাঁর সরকার।

শিক্ষাকে দারিদ্র বিমোচনের হাতিয়ার উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এজন্য নতুন নতুন বিশ্ববিদ্যায় গড়ে তুলে শিক্ষার সুযোগ করে দেয়া হচ্ছে, সৃস্টি হচ্ছে কর্মসংস্থান। যার ফলে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।