সংবিধান সংশোধন করা দরকার: ড. কামাল


আদালত প্রতিবেদক,সেন্ট্রাল ডেস্ক | Published: 06:55 PM, September 13, 2018

IMG

সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন, ‘সংবিধানের আরও কিছু সংশোধনী করা দরকার। এর মধ্যে কিছু ঘাটতি আছে, সেগুলো কীভাবে পুনরুদ্ধার করা যায়, সেগুলো লিখিত আকারে আপনারা দিন।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘একটি কমিটি করে যেগুলো বিবেচনাযোগ্য, সেগুলো তুলে ধরা হোক। এই সংশোধনের লক্ষ্যে একটি কমিশন গঠন করাও যেতে পারে। সরকারই এই কমিটি গঠন করতে পারে। আর সরকার না পারলে আমরা কমিশন গঠন করতে পারি।’


বৃহস্পতিবার দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শহীদ সফিউর রহমান মিলনায়তনে এক মতবিনিময় সভায় ড. কামাল এসব কথা বলেন।

এসময় নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় ঐক্য প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘জোটে জামায়াতে ইসলামী থাকছে না। এককথায় উত্তর ‘না’।’


এ সময় প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের জবাবে ড. কামাল বলেন, ‘একটি ব্যাপারে ২০০৭-০৮ এ আমরা যে মামলা করেছিলাম, তাতে ১ কোটি ৪০ লাখ ভুয়া ভোটটার বাতিল করা হয়েছিল। নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন করা হয়েছিল। সর্বোপরি ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদকে যখন আমরা তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রধান থেকে সরালাম, তখন আমাদের চারজনের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহীর মামলা হলো। এরপর ২০১০ সালে সে মামলা থেকে আমরা মুক্ত হলাম। তখন তো আমরা দেশ ছেড়ে চলে যাইনি। ২০০৮ এর নির্বাচন হতো না। আর হলেও এই ফলাফলও হতো না, যদি না ১ কোটি ৪০ লাখ ভুয়া ভোটা বাতিল করা না হতো।’


তিনি বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচনের জন্য ২০০৭ সালে ২৩টি শর্ত দিয়েছিলেন। ওই শর্তগুলো এখনও প্রযোজ্য হতো, যদি তিনি বর্তমানে বিরোধী দলে থাকতেন। বিরোধী দলে থেকে যখন শর্তগুলো সমর্থন করেছিলেন, আশা করি, সরকারে থেকেও তিনি সমর্থন করবেন।

 


সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকনের সঞ্চালনায় সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীনের সভাপতিত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, অ্যাডভেোকট সুব্রত চৌধুরী, জগলুল হায়দার আফরিক প্রমুখ।










আইন-আদালত বিভাগের আরও সংবাদ