শেষ ওভারের নাটকীয়তায় বাংলাদেশের ৩ রানে জয়


, | Published: 02:18 AM, September 24, 2018

IMG

এশিয়া কাপে সুপার ফোরে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে চরম উত্তেজনার ম্যাচে মুস্তাফিজের শেষ ওভারের দারুণ বোলিংয়ে আফগানিস্তানকে ৩ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। এই জয়ের ফলে বাংলাদেশের ফাইনালের আশা ভালভাবেই বেঁচে রইল।

টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২৪৯ রান করেছে বাংলাদেশ। দলের পক্ষে মাহমুদুল্লাহ ৭৪ এবং ইমরুল কায়েস অপরাজিত ৭২ রান করেন। এছাড়া লিটন দাস করেন ৪১ রান।

বাংলাদেশের হয়ে ইনিংসের সূচনা করেন লিটন দাস ও নাজমুল হোসেন শান্ত। দলীয় ১৬ আর ব্যক্তিগত ৬ রানে শান্ত বিদায় নেন। এরপর মোহাম্মদ মিথুনও থাকতে পারেননি বেশিক্ষণ। তিনি আউট ১ রানে। মুশফিক ও লিটনের জুটিতে ম্যাচে ফেরে বাংলাদেশ। রশিদ খানকে মারতে গিয়ে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ ৪১ করে আউট হন লিটন।

এর পর রান হয় না এমন একটা বলে রান নিতে চেয়ে শূন্য রানে রান আউট হলে ফিরলেন সাকিব। এর পর মুশফিক ও নান স্ট্রাইকিং প্রান্ত দিয়ে ভো দৌড় দিয়ে রান আউট হন। ভাল খেলতে থাক মুশফিক আউট হন ৩৩ রান করে। ১৪ বল আর ৭ রানের মধ্যে বাংলাদেশ হারায় ৩ ব্যাটসম্যানকে।

দলের এ বিপর্যয়ে হাল ধরেন মাহমুদুল্লাহ আর ইমরুল কায়েস। দুজনে মিলে ১২৮ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন। তুলে নেন ব্যক্তিগত অর্ধশতক। এরপর মাহমুদুল্লাহ আউট হবার পর মাশরাফিও দ্রুত ফিরে যান। শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেটে ২৪৯ রানে থামে বাংলাদেশের ইনিংস।   ৭২ রানে অপরাজিত থাকেন ইমরুল। আফগানদের পক্ষে আফতাফ নেন ৩ উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ২০ রানে মুস্তাফিজের বলে ইহসানউল্লাহ'র উইকেট হারায় আফগানিন্তান। রহমত শাহ'ও যেতে পারেননি বেশিদূর। সাকিবের অসাধারণ থ্রো তাঁকে ফেরায় ব্যাক্তিগত ১ রানে। শাহজাদ ও শাহিদির জুটি প্রতিরোধ গড়লেও, ওভার প্রতি রান রেট বাড়তে থাকে আফগানিস্তানের। তবে, ইনিংসের শুরুতে জীবন পাওয়া শাহজাদ ব্যক্তিগত ৫৩ রানে মাহামদুউল্লাহ'র শিকার হলে, স্বত্বিতে ফেরে বাংলাদেশ।

তবে আজগর আর শাহিদীর ব্যাটিং বাংলাদেশকে আবার দুর্ভাবনায় ফেলে। দুর্দান্ত ব্যাট করে জয়টা হাতের কাছে নিয়ে নেয় আফগান দুই ব্যাটসম্যান।  ১৬৭ রানের মাথায় আজগরকে আউট করে বাংলাদেশকে ম্যাচে ফেরান মাশরাফি। এরপর বিপজ্জনক হয়ে উঠা শাহিদীকে ৭১ রানে বোল্ড করে মাশরাফি বাংলাদেশকে জয়ের সুবাস পাওয়ান।

কিন্তু মোহাম্মদ নবী এবং সামিউল্লাহ বাংলাদেশের বোলারদের উপর ছড়ি ঘোরান। আস্কিং রান রেটে কমিয়ে জয়ের কাছে নিয়ে আসেন আফগানদের। ২৩৮ রানের মাথায় ৩৮ করা নবিকে ফেরান সাকিব।
কিন্তু সামিউল্লাহ রশিদ খানকে নিয়ে দুর্দান্ত ব্যাট করতে থাকেন। ৪৭ তম ওভারে মাশরাফি, ৪৮ তম ওভারে মুস্তাফিজ এবং ৪৯ তম ওভারে সাকিবকে মেরে শেষ ওভারে জয়ের জন্য ৮ রানের লক্ষমাত্রায় নিয়ে আশেন তিনি। কিন্তু শেষ ওভারে মুস্তাফিরে দুর্দান্ত বোলিংয়ে অসাধারন এক জয় পায় বাংলাদেশ। শেষ ওভারে ৪ রান দিয়ে রশিদ খানের উইকেট পান মুস্তাফিজ। আর এই জয়ে ফাইনালের আশা বেঁচে রইল বাংলাদেশে। শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ পাকিস্তানের ম্যাচে যারা জিতবে তারাই ফাইনালে ভারতের সঙ্গী হবে।