আরো একবার ফাইনালের হতাশা


, | Published: 12:05 PM, September 29, 2018

IMG

আবারো ভারতের কাছে স্বপ্নের জলাঞ্জলি। এশিয়া কাপে আবারো রানার্স-আপ বাংলাদেশ। শেষ ওভারে আরেকটি হতাশার গল্প। এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বে ৩ উইকেটে জয়ী ভারতের সপ্তম শিরোপা জয়। ফাইনালে বাংলাদেশের শান্তনা লিটন দাসের ম্যাচসেরা হওয়া। আর টুর্নামেন্ট সেরা হয়েছে শিখর ধাওয়ান।

আশা জাগিয়েও এশিয়া কাপের ফাইনালে ভারতের কাছে ৩ উইকেটে হেরেছে বাংলাদেশ। টাইগারদের দেয়া ২২৩ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় ভারত।

১৩ দিনে ৫ ম্যাচ। এ সময় ভক্তদের কখনোই মনে হয়নি বাংলাদেশের ওপেনিং বলে কিছু আছে। তবে, দুবাইয়ে নতুন সূর্য উদয় হয়েছে লাগাতার সমালোচনায় জর্জরিত লিটনের ব্যাটিংয়ে। নতুন সঙ্গী মিরাজের অবদানটাও প্রসংশার যোগ্য।

বাংলাদেশের ওপেনিং পার্টনারশিপ ভারতকে এতোটাই ভয় ধরিয়েছিল যে, ১৩ ওভারের মধ্যে ৫ বোলার চেস্টা করে তা ভাঙার। ওভারের সঙ্গে রানের গতি রেড়েছে, ভারতের মুখাবয়বও হয়েছে গোমড়া।

১২৫ বল অপেক্ষায় রাজ্যের হতাশা দুর হয় ভারতের। ওপেনার হিসেবে মিরাজের ভ্রমন থামে ৩২-এ। ১২০ রানের আলোচিত জুটি, ভারতের বিপক্ষে ওপেনিংয়ে সর্বোচ্চ।

কষ্ট আর গ্লানি মেটানোর এমন দিনে, গর্ব করা মিডল-অর্ডার লজ্জায় ফেলেছে। দায়িত্বের ছিঁটেফোটাও ছিলোনা ইমরুল-মুশফিক-মিঠুন ও মাহামুদউল্লাহ’র ব্যাটে। বিশেষত মুশফিক-মাহমুদুল্লাহর আউটকে ক্রাইম বললে কম বলা হবে।

এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের জন্য বাংলাদেশের তৈরি করা শক্ত সেই ভিতটা পলকেই তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে ব্যাটসম্যানদের গাফিলতিতে। প্রত্যেকেই ছুটেছেন আলেয়ার আলোর পেছনে। ২২ গজ তখন বাংলাদেশের জন্য গোলকধাঁধা।

সেই বাধায় আটকাননি লিটন। ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি, সেটাও গুরুত্বপূর্ণ সময়ে। তবে, এমন ইনিংসের পরও বাংলাদেশের স্কোরবোর্ড হাতাশ করেছে লিটনকে।

১২১ রানে লিটনের ইনিংসে ছেদ। তবে আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত প্রশ্নে অবকাশ রেখে গেল। শেষ দিকে, সৌম্য সরকারের ৩৩ রানের সুবাদে ৯ বল বাকি রেখে ২২২ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। কুলদ্বীপ যাদব নেন ৩ উইকেট।

জবাবে, দলীয় ৩৫ রানে ধাওয়ান এবং ৪৬-এ রাইডুকে ফিরিয়ে কিছুটা আশা জাগিয়েছিল বাংলাদেশী বোলাররা। তবে, সেই আশায় হুমকি ছিলেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা। ব্যাক্তিগত ৪৮ রানে রুবেলের শিকার হন রোহিত। কার্ত্তিকের ৩৭ ধোনীর ৩৬ কেদারের এবং ভুবেন্বশরের ২৩ রানের কল্যাণে শেষ ওভারে গিয়ে জয় তুলে নেয় ভারত।

গত ৪ এশিয়া কাপের তিনটিতেই ফাইনালে উঠে বাংলাদেশ। কিন্তু তিনবারই হতাশা নিয়ে মাঠ ছেড়েছে টাইগাররা।