ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৮৪


, | Published: 01:44 PM, September 29, 2018

IMG

ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি দ্বীপে ৭দশমিক ৫ মাত্রার ভূমিকম্পের পর সৃষ্ট সুনামিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে প্রায় ৪০০ জনের দাড়িয়েছে। বার্তা সংস্থা এএফপি মৃতের সংখ্যা বলেছে ৩৮৪ জন। শনিবার সকাল থেকে উদ্ধার অভিযান শুরু হযেছে। তবে যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায়, অনেক এলাকায় পৌছতে পারে না উদ্ধারকর্মীরা।

শুক্রবার সন্ধ্যায়, উন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি দ্বীপে ৭ দশমিক ৫ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে। মুহুর্তের মধ্যেই বহু ঘরবাড়ি ভেঙে পড়ে। বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে বিস্তীর্ণ অঞ্চলের বিদ্যুৎ সরবরাহ ও যোগাযোগ ব্যবস্থা। এসময় আতঙ্কে-ভয়ে বাড়িঘর ছেড়ে রাস্তায় নেমে আসে স্থানীয় বাসিন্দারা।

ভূমিকম্পের পরপরই, সুনামির সৃষ্টি হয়। এসময় সুলাওয়েসি দ্বীপের পালুসহ উপকূলীয় এলাকাগুলোতে ৬ ফুট উচ্চতার ঢেউ আছড়ে পড়ে। বহু ঘরবাড়ি ভেসে যায়। উপকূলে থাকা নৌযানেরও ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়।

মার্কিন ভূ-তাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা জানিয়েছে, ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ছিলো সুলাওয়েসি দ্বীপে ভূপৃষ্ঠ থেকে ১০ কিলোমিটার গভীরে। ভূমিকম্প ও সুনামিতে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সুলাওয়েসি দ্বীপের পালু অঞ্চল। সেখানে অন্তত ৩ লাখ লোকের বসবাস। শুক্রবার সকালে উদ্ধার অভিযানে নেমে পড়ে কয়েকটি সংস্থা। তবে যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙে পড়ায় উদ্ধার তৎপরতা ব্যবহত হচ্ছে।

দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থা ব্যবস্থাপনা দপ্তরের এক মুখপাত্র জানান, যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙে পড়ায়, পালুর প্রত্যন্ত অঞ্চলে যাওয়া সম্ভব হয়নি। যারফলে হতাহতের অনেক তথ্য এখনো অজানা রয়ে গেছে। মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তিনি।

গত মাসেও ইন্দোনেশিয়ায় কয়েকটি শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানে। এর মধ্যে ৫ অগাস্ট হওয়া সবচেয়ে শক্তিশালী কম্পনে লম্বোক দ্বীপে সাড়ে চারশ মানুষের প্রাণহানি ঘটে।