সিনহার বই প্রকাশে মদদদাতাদের খুঁজে বের করতে সাংবাদিকদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহবান


, | Published: 01:49 PM, September 29, 2018

IMG

সাবেক বিচারপতি এস কে সিনহার বই প্রকাশে দেশের সাংবাদিক, আইনজীবী ও পত্রিকার মালিকদের মদদ দেওয়ার তথ্য থাকার কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে, এ  জীবনী প্রকাশের পেছনে কারা জড়িত সাংবাদিকদেরই তা খুজে বের করারও আহ্বান জানান তিনি। নিউ ইয়র্কের স্থানীয় সময় শুক্রবার জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী মিশনে এক সংবাদ সম্মেলন একথা বলেন তিনি।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৩ তম অধিবেশন শেষে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অংশগ্রহণ সম্পর্কে গণমাধ্যমকে বিস্তারিত জানাতেই এ সংবাদ সম্মলন। লিখিত বক্তব্য শেষে প্রধানমন্ত্রী উত্তর দেন সাংবাদিকদের নানা প্রশ্নের।

সাবেক বিচারপতি এসকে সিনহার বই এ ব্রোকেন ড্রিম: রুল অব ল, হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ডেমোক্রেসিতে বাংলাদেশের নানা বিষয়ে স্পর্শকাতর বক্তব্য থাকায়, সাংবাদিকরা প্রশ্ন রাখেন প্রধানমন্ত্রীর কাছে। একই সঙ্গে উঠে আসে দুর্নীতির বিষয়টিও।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসময় সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার আত্মজীবনী প্রকাশের পেছনে কারা রয়েছে তা খুঁজে বের করতে সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, তিনি এ ব্যাপারে জানেন।

তিনি বলেন, ‘আমি এ ব্যাপারে জানি, কিন্তু আমি আপনাদের বলবো না। বরং আমি আপনাদের কাছ থেকে এ ব্যাপারে জানতে চাই এবং আমি চাই এই বই প্রকাশের পেছনে কারা রয়েছে তা আপনারা খুঁজে বের করবেন।’

‘এ ব্রোকেন ড্রিম : রুল অব ল’, হিউম্যান রাইটস এন্ড ডেমোক্রেসি’ শীর্ষক এই বইয়ের কপিরাইট হচ্ছে ললিতমোহন- ধনাবাতি মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের নামে। আগামীকাল যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটনে এই বইয়ের প্রকাশনা উৎসবের কথা রয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, এই বইয়ের পান্ডুলিপি কতবার বাংলাদেশে নিয়ে যাওয়া হয় এবং সেখান থেকে আনা হয় তা সাংবাদিকদের খুঁজে বের করতে হবে।
তিনি বলেন, ‘এই বই প্রকাশনায় কারা অর্থ দিয়েছে এবং আপনাদের মতো কোন সংবাদপত্রের সাংবাদিক এর সঙ্গে জড়িত কিনা এবং কি পরিমাণ অর্থ দিয়েছে তা অনুগ্রহ করে উন্মোচন করুন।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কোন বড় আইনজীবী এই বইয়ের পান্ডুলিপি সংশোধন করে দিয়েছেন কিনা অথবা কোন সংবাদপত্র অথবা এর মালিক এর পৃষ্ঠপোষক কিনা তা আপনারা খুঁজে বের করুন।’

ডিজিটাল আইন নিয়ে করা এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন: অপব্যবহার রুখতে এ আইন, সাংবাদিকদের কণ্ঠ রোধে নয়।।জাতীয় নির্বাচন কিভাবে অনুষ্ঠিত হবে, সে বিষয়েও সুস্পষ্ট বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী।

ঘণ্টাব্যাপি এ আয়োজনে নানা বিষয়ের বিস্তারিত তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোহিঙ্গা ইস্যুতে  চীন, ভারতসহ প্রতিটি দেশই এগিয়ে এসেছে বলেও জানান তিনি। এ সময় তিনি সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ মাদকের বিরুদ্ধে চলা অভিযান অব্যাহত রাখারও ঘোষণা দেন।