শত শত যাত্রীকে বাঁচাতে নিজের প্রাণ দিলেন এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলার


, | Published: 05:51 PM, October 01, 2018

IMG

শত শত যাত্রীর প্রাণ বাঁচাতে গিয়ে নিজেই প্রাণ দিলেন। ইন্দোনেশিয়ার পালু বিমানবন্দরের এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের দায়িত্বে ছিলেন ২১ বছরের তরুন কর্মী অ্যান্টোনিয়াস গুনাওয়াং আগুং। সহকর্মীরা ছেড়ে গেলেও প্রাণের বিনিময়ে দায়িত্ব পালন করেন তিনি আজ হিরো।

নি:শেষে প্রাণ যে করিবে দান, ক্ষয় নাই তার ক্ষয় নাই। পালু বিমানবন্দরের এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলার অ্যান্টোনিয়াস গুনাওয়াং আগুং আজীবন ইন্দোনেশিয়ার হিরো হয়েই থাকবেন।

গত শুক্রবার ৭ দশমিক ৫ মাত্রার ভূমিকম্প যখন আঘাত হানে, তখন বাটিক এয়ার ফ্লাইট-৬৩২১ রানওয়েতে ছিল। বিমানটির নিরাপদ অবতরণ নিশ্চিত করার জন্য কন্ট্রোল রুমে থেকে গিয়েছিলেন গুনাওয়ান আগুং। আর নিজেদের বাঁচাতে স্বার্থপরের মতো তাকে ছেড়ে টাওয়ার থেকে বেরিয়ে যান সহকর্মীরা।

ততক্ষণে নিরাপদে অবতরণ করেছে বিমানটি। অক্ষত শত শত যাত্রী। কিন্তু দেরি হয়ে গেছে ২১ বছরের ওই তরুনের। টাওয়ারটি ধসে পড়তে পারে ভেবে তিনি পাঁচতলা থেকে নিচে লাফিয়ে পড়েন এবং গুরুতর আহত হন। পরে হাসপাতালে মারা যান।

টুইটারে এয়ার নেভিগেশনের পেজে আগুংয়ের বীরত্বের কথা তুলে ধরে শ্রদ্ধা জানানো হয়েছে। শেষ যাত্রার আগে গার্ড অব অনার জানানো হয়েছে তাকে। বীরের মৃত্যু নেই। শত শত যাত্রীকে বাঁচাতে নিজের প্রাণ বিসর্জন দিয়ে আবারো তা প্রমাণ করে গেলেন অ্যান্টোনিও গুনাওয়াং আগুং।