চালুর আগেই বন্ধ বিশ্বের সর্ববৃহৎ সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প


আন্তর্জাতিক ডেস্ক, | Published: 07:31 PM, October 03, 2018

IMG

২০০০ কোটি ডলার মূল্যের সৌরশক্তি প্রকল্প বন্ধ করেছে সৌদি আরব এবং বিনিয়োগকারী সংস্থা, সফটব্যাঙ্ক। প্রয়োজনের তিনগুণ শক্তি উৎপাদন করতে সক্ষম প্রকল্পটি সৌদি রাষ্ট্রের অর্থনৈতিক রূপান্তর পরিকল্পনার গুরুত্বপূ্র্ণ অংশ ছিল।


সৌদি রাষ্ট্রীয় সূত্রমতে, সৌদি আরবে বিশ্বের বৃহত্তমসৌর বিদ্যুৎ উৎপাদন প্রকল্পনির্মাণের পরিকল্পনা আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তির উন্নয়নে সৌদি আরবের আরো অনেক বৃহত্তর ও কার্যকর কৌশল নিশ্চিত করা বাকি বলেই এমন সিদ্ধান্ত। সৌর প্রকল্পটির ২০৩০ সালের মধ্যে প্রায় ২০০ গিগাওয়াট শক্তির উৎপাদন করার কথা ছিল, দেশটির দৈনিক চাহিদার চেয়ে যা তিনগুণ বেশি।


মার্কিন পত্রিকা ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সৌদি সরকারের এক উপদেষ্টা জানান, ‘কোনো নতুন প্রকল্প আকর্ষণীয় হলেও তাকে সঠিকভাবে নির্বাহ করা কঠিন৷ পাশাপাশি এই প্রকল্পে কেউ সক্রিয়ভাবে কাজও করছিল না।’


সুবিশাল মরুভূমি এবং প্রচুর রোদ থাকা সত্ত্বেও, সৌদি আরবেরসৌরবিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতাবর্তমানে পর্যাপ্ত নয়৷ মূলত জীবাশ্ম জ্বালানী থেকেই তার প্রয়োজনীয় শক্তি উৎপাদন করে সৌদি আরব৷ তবে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের নেতৃত্বে তেলের উপর নির্ভরতা কমিয়ে অর্থনীতির অন্যান্য দিকে জোর দিচ্ছে বর্তমান সৌদি রাষ্ট্র৷


দেশটির সরকারের সাথে হাত মিলিয়ে জাপানি সংস্থা, সফটব্যাঙ্ক, ইতিমধ্যেই সৌদি আরবের পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি ও তার প্রযুক্তিতে বিনিয়োগ বাড়িয়ে তুলতে ১০০ বিলিয়ন ডলারের ‘ভিশন ফান্ড` নামের একটি উদ্যোগ তৈরি করেছে৷ প্রকল্পটির প্রথম পর্যায়ে এক বিলিয়ন মার্কিন ডলার খরচ করা সত্ত্বেও বাধাগ্রস্ত হচ্ছে সৌদির ‘সৌর-স্বপ্ন’।


সৌদি কর্মকর্তাদের মতে, রাষ্ট্রের পক্ষে এখনো ভূমি অধিগ্রহণ, উন্নয়নের পরিকাঠামো বা ভর্তুকি বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি৷ এর পরিবর্তে, অক্টোবরের শেষের দিকে ঘোষণা করার জন্য একটি বৃহত্তর কৌশল প্রণয়ন করছে সরকার, যা সৌদি আরবের পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি বিষয়ক লক্ষ্য ব্যাখ্যা করতে সাহায্য করবে৷ সে ক্ষেত্রে সফটব্যাঙ্ক ভবিষ্যতে ২০০ গিগাওয়াটের এই সৌরপ্রকল্প নির্মাণে জড়াবে কি না, তা এখনো পু্রোপু্রি স্পষ্ট নয়৷