চাকরির আগে ‘ডোপ টেস্ট’ এবং বিয়ের আগে স্বাস্থ্য পরীক্ষা কেন বাধ্যতামূলক নয়


নিজস্ব প্রতিবেদক :, | Published: 04:38 PM, November 06, 2018

IMG

চাকরিতে যোগ দেওয়ার আগে ‘ডোপ টেস্ট’ এবং বিয়ের আগে বর-কনের রক্তে থ্যালাসেমিয়া ও মাদকের অস্তিত্ব আছে কি না তার পরীক্ষা কেন বাধ্যতামূলক করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। একটি রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাই কোর্ট বেঞ্চ সোমবার এ রুল জারি করে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব, আইন সচিব, স্বাস্থ্য সচিব, পুলিশ মহাপরিদর্শক, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী একলাছ উদ্দিন ভূইয়া। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু।

মাদকাসক্তির প্রবণতা কমিয়ে আনতে চাকরির আগে ডোপ টেস্ট দরকার বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার প্রায় ১০ ভাগ অর্থাৎ প্রায় দেড় কোটি নারী-পুরুষ থ্যালাসেমিয়া রোগের বাহক। আর তাদের মাধ্যমে প্রতি বছর প্রায় ৮ থেকে ১০ হাজার শিশু এ রোগ নিয়ে জন্ম নিচ্ছে। তাই বিয়ের আগে বর-কনের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে দেখা বাধ্যতামূলক করা উচিত।

ডোপ টেস্ট ও বিয়ের আগে বর-কনের রক্তে থ্যালাসেমিয়া ও মাদকের অস্তিত্ব আছে কি না, তার বাধ্যতামূলক পরীক্ষা চেয়ে গত ৫ জুলাই হাই কোর্টে এ রিট আবেদন করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সৈয়দা শাহিন আরা লাইলী।