প্রাধান্য পেয়েছেন ব্যবসায়ীরা


ঢাকা,প্রবাহ টোয়েন্টিফোর ডটকম | Published: 11:42 PM, January 07, 2019

IMG

এবারের নতুন মন্ত্রিসভায় অর্থনীতি ও ব্যবসা-বাণিজ্যসংক্রান্ত মন্ত্রণালয়গুলোতে ব্যবসায়ীদের প্রাধান্য দেখা গেছে। অর্থ, বাণিজ্য, শিল্প, বস্ত্র ও পাট এবং বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাচ্ছেন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ীরা। আজ সোমবার নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ নেবেন। অবশ্য মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলে যেকোনো প্রতিষ্ঠানের লাভজনক পদ ছেড়ে দিতে হয়।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিচ্ছেন কুমিল্লা থেকে নির্বাচিত সাংসদ ও বর্তমান পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি দেশের একজন শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত। বাণিজ্যমন্ত্রী হচ্ছেন রংপুর জেলার সাংসদ টিপু মুনশি। তিনি পোশাকশিল্প মালিকদের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি ছিলেন। টিপু মুনশি এবারই প্রথমবারের মতো মন্ত্রী হচ্ছেন।

বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী হচ্ছেন নারায়ণগঞ্জ থেকে নির্বাচিত সাংসদ গোলাম দস্তগীর গাজী। তিনি একজন বড় ব্যবসায়ী, গাজী গ্রুপের চেয়াম্যান। এই গ্রুপটি উৎপাদন, আবাসন, ব্যাংক ও আর্থিক খাত, তথ্যপ্রযুক্তিসহ বিভিন্ন ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। গোলাম দস্তগীর গাজীও প্রথমবারের মতো মন্ত্রী হচ্ছেন।

এ ছাড়া শিল্পমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন নরসিংদী জেলার সাংসদ নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন। তিনি নির্বাচন কমিশনে দেওয়া হলফনামায় পেশা হিসেবে উল্লেখ করেছেন আইন পেশা। তাঁর আয়ের বড় উৎস চিংড়ি চাষ। শিল্প মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পাচ্ছেন ঢাকা-১৫ থেকে নির্বাচিত সাংসদ কামাল আহমেদ মজুমদার। তিনি হলফনামায় নিজের পেশা হিসেবে ব্যবসা, কৃষি ও মৎস্য খামারকে উল্লেখ করেছেন। তিনিও প্রথমবারের মতো মন্ত্রিসভার সদস্য হচ্ছেন।

এদিকে ব্যবসা-বাণিজ্যের সঙ্গে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ওতপ্রোতভাবে জড়িত। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী হচ্ছেন নসরুল হামিদ। রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (রিহাব) সাবেক সভাপতি তিনি। তিনি গত পাঁচ বছর একই মন্ত্রণালয়ে ছিলেন তিনি।