ঋণ খেলাপীদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে সরকারি ব্যাংক


, | Published: 03:43 PM, November 09, 2017

IMG

ঋণ খেলাপীদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে সরকারি ব্যাংক। বিচারহীনতার সংস্কৃতি খেলাপী ঋণ বাড়াচ্ছে। রাজনৈতিক সদিচ্ছা ছাড়া এ চক্র থেকে বেরুনোর কোনো পথ নেই।

ঠিক জায়গায়, ঠিকভাবে যাচ্ছে না সরকারি ব্যাংকের বেশিরভাগ ঋণ। নেই সঠিক কাগজপত্র। মানা হচ্ছে না নিয়মকানুনও।আবার আদায় করতে হিমসিম খেতে হয় ব্যাংকগুলোকে। ফলে খেলাপী হয়ে যাচ্ছে ঋণ।

বেসিক ব্যাংক আর সোনালি ব্যাংকের বড় ধরণের ঋণ জালিয়াতি পুরোনো অভিযোগকেই প্রমান করলো। সম্প্রতি সংসদীয় কমিটি যে চিত্র তুলে ধরেছে তাতে বেসিক ব্যাংকের খেলাপী ঋণ ৬ হাজার ৫০০কোটি। আর সোনালী ব্যাংকের শীর্ষ ২০ ঋণ খেলাপীর কাছে পাওনা ৩ হাজার ২২৫ কোটি টাকা। আর  অর্থমন্ত্রণালয়ের সবশেষ হিসাব বলছে, জুন শেষে  গোটা ব্যাংকখাতে খেলাপী ঋণ ৭৪ হাজার কোটি টাকা। যার ৪০ হাজার কোটি টাকাই সরকারি ব্যাংকের। চার বছরেই এসব ব্যাংকের খেলাপী ঋণ বেড়েছে আট হাজার কোটি টাকা।

এসব অর্থ উদ্ধার করতে গিয়ে বেরিয়ে আসে নানা জাল-জালিয়াতির গল্প। ঠিক নেই জামানতের কাগজপত্র। আবার কাগজে থাকলেও বাস্তবে নেই। মামলা করলে রিট হয়। আদায় প্রক্রিয়া স্থগিত করে দেয় ঋণ খেলাপীরা। তাহলে কী ঋণেল অর্থ উদ্ধারের কোনো পথ নেই?

বিশ্লেষকরা বলছেন, যদি এমন নিয়ম করা যায়, খেরাপী ঋণের মামলার বিরুদ্ধে কেউ রিট বা আপিল করতে চাইলে তাকে ঋণের অর্ধেক টাকা জমা দিতে হবে। তাহলেও উদ্ধার হতো অনেক টাকা।