‘রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারের সাথে লিখিত চুক্তি হবে’


, | Published: 09:22 PM, November 11, 2017

IMG

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারের সাথে বাংলাদেশ সরকারে লিখিত চুক্তি স্বাক্ষরের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচির মো: শহীদুল হক। শনিবার  রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে ‘রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলায় বাংলাদেশের করণীয়’ শীর্ষক এক সেমিনারে এ কথা জানান তিনি।

রোহিঙ্গা সংকটের কারণে বাংলাদেশ বহুমাত্রিক সমস্যায় পড়েছে। এ সংকটে সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছে অর্থনীতি, সমাজ ও পরিবেশের ওপর। অর্থনীতিতে প্রভাব পড়ায় জীবন যাপনের ব্যয় বেড়েছে, আর কর্মসংস্থানের সংকট তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে পর্যটন শিল্প। শনিবার সকালে রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে আয়োজিত এক সেমিনারে বক্তাদের আলোচনায় উঠে আসে বিষয়গুলো। রোহিঙ্গা সংকটে বাংলাদেশের করনীয় শীর্ষক এ সেমিনারের আয়োজন করে বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ –সিপিডি।

সেমিনারে অংশ নেন সরকারী কর্মকর্তা, নিরাপত্তা বিশ্লেষক, বিভিন্ন দেশের সাবেক রাষ্ট্রদূতসহ দেশী-বিদেশী এনজিওর প্রতিনিধীরা। তারা বাংলাদেশের এ সংকট নিরসনের নানান উপায় নিয়ে আলোচনা করেন। অনুষ্ঠানে আয়োজকদের পক্ষ থেকে একটি প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়।

সেখানে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশন- ইউএনএইচসিআর এর একটি গবেষণার বরাত দিয়ে বলা হয় ক চলতি অর্থবছরের ১০ মাসে বাংলাদেশে বসবাসরত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর জন্য ৭ হাজার ১২৬ কোটি টাকা বরাদ্দ লাগবে। যা বাংলাদেশের  মোট বাজেটের ১ দশমিক ৮ শতাংশ। আর মোট রাজস্বের ২ দশমিক ৫ শতাংশ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দিয়ে পররাষ্ট্র সচিব মো: শহীদুল হক বলেন রোহিঙ্গা সংকটের শুরুর দিকে তিনটি ইসলামীক রাষ্ট্রের কাছে চেয়েও কোন সহযোগীতা পায়নি বাংলাদেশ।










জাতীয় বিভাগের আরও সংবাদ