অবশেষে বাড়ছে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা


Hasib, | Published: 01:32 PM, December 31, 2017

IMG

অবশেষে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ানো হচ্ছে। তিন বছর বাড়িয়ে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ বছর করার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা গেছে।

অর্থমন্ত্রণালয়ের গ্রীন সিগন্যাল পাওয়ার পর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এই পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে। 

এছাড়া সরকারি চাকরির বয়সসীমা ৫৯ বছর থেকে আরও ৩ বছর বাড়ানো হতে পারে। ৭২ সালে আমাদের দেশে মানুষের জীবনসীমা ছিল মাত্র ৫৮ বছর। এখন সেটা ৭০ এর কাছাকাছি। এসব বিবেচনায় নিয়ে সরকারি চাকরিতে অবসরের বয়সসীমা আরও তিন বছর বাড়িয়ে ৬২ বছর করা হবে।

বেকার যুবকরা দীর্ঘদিন ধরেই সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ করার দাবিতে আন্দোলন করে আসছে। তাদের যুক্তি, সেশনজটের কারণে তাদের শিক্ষাজীবন থেকে গুরুত্বপূর্ণ মূল্যবান কয়েকটি বছর হারিয়ে যাচ্ছে। তাদের চাকরি উপযোগী শিক্ষা অর্জনের পর আর মাত্র ২-৩ বছর সময় হাতে থাকছে। এ সময়ের মধ্যে প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়ে চাকরি পাওয়া অসম্ভব। সেক্ষেত্রে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সময়সীমা বাড়ানোর দাবি তাদের। এছাড়া পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতসহ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ বছরের ওপর। অথচ আমাদের দেশে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সীমা হচ্ছে ৩০ এবং মুক্তিযোদ্ধা কোটার প্রার্থীদের ক্ষেত্রে ৩২ বছর। সরকার বিষয়টি বিবেচনা করছে বলে জানা গেছে।

এদিকে সিনিয়র সিটিজেনদের পড়ন্ত জীবনে রাষ্ট্রীয়ভাবে যেসব সুবিধা দেয়ার কথা, তার একটি নিয়েও কাজ শুরু করেনি সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়। এমনকি প্রবীণদের জন্য পরিচয়পত্র তৈরি করতে পারেনি সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়। এছাড়া সরকারিভাবে জেলা পর্যায়ে এক বা একাধিক প্রবীণনিবাস তথা আবাসন নির্মাণের কথা থাকলেও তা শুরু হয়নি বলে জানা গেছে। প্রবীণ উন্নয়ন ফাউন্ডেশন গঠন করে প্রবীণদের রোগ প্রতিরোধ ও নিরাময়ের উদ্যোগ নেয়া, মেডিকেল কলেজ এবং হাসপাতালগুলোয় জেরিয়াট্রিক মেডিসিন (জ্বরাবিজ্ঞান) কর্নার খোলার ব্যবস্থা নেয়ার কথা থাকলেও তা চালু করা সম্ভব হয়নি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, দেশে বর্তমানে প্রায় ১ কোটি ৩০ লাখ ষাটোর্ধ্ব নারী-পুরুষ রয়েছেন। তাদের অনেকেই দারিদ্র্যসীমার মধ্যে জীবনযাপন করছেন। তাদের মধ্যে সরকারিভাবে ২৭ লাখ ২৩ হাজার জনকে মাসিক ৩০০ টাকা করে বয়স্ক ভাতা দেয়া হচ্ছে। ভাতার টাকা ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে পরিশোধ করা হয়। বিপুলসংখ্যক প্রবীণ ব্যক্তি সরকারি সীমাবদ্ধতার কারণে ভাতা সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

সংশ্লিষ্টরা জানান, দেশের সরকারি ও বেসরকারি আবাসন প্রতিষ্ঠানকে বাসাবাড়ি নির্মাণের সময় প্রতিটি বাসায় একটি করে প্রবীণ কক্ষ নির্মাণের বাধ্যবাধকতা আরোপ করার কথা। ওই কক্ষটি কেবল পরিবারের প্রবীণ সদস্যই ব্যবহার করবেন।

বর্তমানে দেশের ৫০টি জেলায় বৃদ্ধাশ্রম রয়েছে। সরকার ৬৪ জেলায় বৃদ্ধাশ্রম স্থাপন করবে বলে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।