শীতের সঙ্গে বাড়ছে শিশুদের ঠান্ডাজনিত রোগ


, | Published: 04:59 PM, December 31, 2017

IMG

শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় কুষ্টিয়ায় ঠান্ডাজনিত রোগে শিশুরা আক্রান্ত হচ্ছে বেশি। তবে শয্যা সংখ্যার স্বল্পতায় চিকিৎসা দিতে হিমসিম খেতে হচ্ছে হাসপাতালের চিকিৎসকদের। এদিকে প্রচন্ড শীতে  দিনাজপুরে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে স্বাভাবিক জীবন।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের শিশু বিভাগের চিত্র এটি। সর্দি, কাশি, নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়াসহ নানা রোগে আক্রান্ত শিশুরা ভর্তি হয়েছে এখানে। কিন্তু, পর্যাপ্ত শয্যা না থাকায় সিঁড়ির পাশে বা খোলা বারান্দায় চিকিৎসা নিতে হচ্ছে তাদের।

গত এক সপ্তাহে ২৫০ শয্যা হাসপাতালের বহি বিভাগে প্রায় ১ হাজার রোগীর চিকিৎসা দিয়েছেন চিকিৎসকরা। অতিরিক্ত রোগীর চাপ ও লোকবল সঙ্কটের কারণে চিকিৎসা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে তাদের।

এদিকে দিনাজপুরে কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা। এর সঙ্গে বায়ু প্রবাহ শীতের মাত্রা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। ভোর থেকে দুপুর পর্যন্ত ঘন কুয়াশায় ঢাকা থাকছে এই অঞ্চলের জনপদ।

এতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছে ওই অঞ্চলের জনজীবন।  সবচেয়ে বেশি কষ্টে পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষেরা।  শীত নিবারনে গরম কাপড়ের জন্য প্রশাসন ও বিত্তবানদের সহযোগিতা চাইলেন তারা।

দিনাজপুরের আঞ্চলিক আবহাওয়া কার্যালয় থেকে জানা গেছে, গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে দিনাজপুরে তাপমাত্রা কমেছে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।