নজিরবিহীন সংকটে ভারতের সর্বোচ্চ আদালত


Hasib, | Published: 07:51 PM, January 12, 2018

IMG

ভারতীয় বিচারব্যবস্থার ইতিহাসে নজিরবিহীন ঘটনা ঘটালেন সুপ্রিম কোর্টের চার বিচারপতি। প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের বিরুদ্ধে দিল্লিতে সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে প্রকাশ্যে ‘বিদ্রোহ’ করলেন তারা। আজ শুক্রবার নয়াদিল্লিতে দ্বিতীয় জ্যেষ্ঠ বিচারপতি জে চেলামেশ্বরের বাড়িতে হয় এই সংবাদ সম্মেলন। যেখানে উপস্থিত ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের অপর তিন সহকর্মী বিচারপতি কুরিয়েন জোসেফ, বিচারপতি রঞ্জন গগৈ এবং বিচারপতি মদন লোকুর।

 

শীর্ষ আদালতে মামলা বণ্টন, বিচারপতিদের নিয়োগ থেকে শুরু করে আরও নানান বিষয়ে গরমিলের অভিযোগ তুললেন তারা। কথা বলেছেন, ‘বিচারবিভাগের ভিতরে দুর্নীতি’ নিয়েও। সংবাদ সম্মেলনে বিচারপতি চেলামেশ্বর বলেন, সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন নিয়ম অনুযায়ী চলছে না। বিগত কয়েক মাসে নিয়মের এই ব্যত্যয় ঘটছে। এই দুঃখজনক পরিস্থিতিতে আমাদেরকে সংবাদ সম্মেলনে আসতে হয়েছে।

 

তিনি আরও বলেন, ‘চারজন বিচারপতির পক্ষ থেকে দুই মাস আগে এ বিষয়ে প্রধান বিচারপতিকে একটি চিঠি দেয়া হয়েছে। কিন্তু তার কাছ থেকে কোনো জবাব পাওয়া যায়নি। এমনকি চার বিচারপতির পক্ষ থেকে শুক্রবার ডাকা হলেও প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র কোনো সাড়া দেননি। আমরা সম্মিলিতভাবে সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছি।

 

গণতন্ত্রের অস্তিত্ব সঙ্কটের আশঙ্কা প্রকাশ করে বিচারপতি জে চেলামেশ্বরের আরও বলেন, ‘এখন দেশ ঠিক করুক প্রধান বিচারপতিকে অপসারণ করা উচিত কিনা।’ প্রেস কনফারেন্সের পর প্রধান বিচারপতি দীপাক মিশ্র অ্যাটর্নি জেনারেল কে কে ভেনুগোপালের সঙ্গে আলোচনা করেন।

 

গত বছর হাইকোর্টের তত্কালীন প্রধান বিচারপতি সিএস কারনানের ঘটনা শোরগোল ফেলে দিয়েছিল গোটা দেশে। বিচারপতিদের দুর্নীতি নিয়ে মুখ খুলে, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অমান্য করে, জেল পর্যন্ত খাটতে হয়েছে কারনানকে। এ দিনের ঘটনা ধারে এবং ভারে তাকেও ছাপিয়ে গেল।