দুর্নীতি সূচকে দুই ধাপ উন্নতি বাংলাদেশের


, | Published: 04:40 PM, February 22, 2018

IMG

দুর্নীতি সূচকে এবার দুই ধাপ উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের। সারাবিশ্বে দুর্নীতিতে বাংলাদেশের অবস্থান এখন ১৪৩। গত বছর এই অবস্থান ছিল ১৪৫। শীর্ষ দুর্নীতিগ্রস্থ দেশগুলোর মধ্যে দুই ধাপ এগিয়ে বাংলাদেশ ১৭ নম্বরে উঠে এসেছে। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল –টিআই এর বার্ষিক প্রতিবেদনে এই তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। তবে টিআইবি বলছে, এতে সাময়িক স্বস্তি মিললেও, সন্তুষ্ট হবার কিছু নেই।

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বা টিআই-এর দুর্নীতি ধারনা সূচক ২০১৭ প্রকাশ করতে বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীতে টিআইবি কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলন।

১৮০ টি দেশের মধ্যে উপর তৈরি এই প্রতিবেদন অনুযায়ী,  গতবছরের তুলনায় বাংলাদেশের দুর্নীতি এবার কমেছে। দুর্নীতি সূচকে গতবারের তুলনায় দুই ধাপ এগিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান এবার ১৪৩ নম্বরে। গত বছর এই অবস্থান ছিল ১৪৫। শীর্ষ দুর্নীতিগ্রস্থ দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৭ নম্বরে। গতবার যা ছিল ১৫ নম্বর।

১০০ এর মধ্যে  বাংলাদেশের স্কোর এবার ২৮ পয়েন্ট। ২০১১ সাল থেকে টিআই-এর দুর্নীতি ধারনা সূচকে অন্তর্ভুক্তির পর এটাই বাংলাদেশের সবচেয়ে ভাল স্কোর। তবে টিআইবি বলছে, দুর্নীতির ব্যাপকতা এখনও এখানে উদ্বেগজনক।

টিআইবি জানায়, প্রয়োগের ঘাটতি, ব্যাংকিং ও অর্থনৈতিক খাতসহ বিভিন্ন খাতে ক্রমবর্ধমান অনৈতিক প্রভাব বিস্তার, অনিয়ম ও দুর্নীতি ও বিশৃঙ্খলায় জড়িত সহায়তাকারী ও দায়ীদের উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বিচারের আওতা তথা জবাবদিহিতা নিশ্চিতে সফল হতে না পারায় বাংলাদেশে ভালো করতে পারেনি।

এদিকে এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশ নবম দুর্নীতিগ্রস্থ দেশ। আর দক্ষিণ এশিয়ার ৮টি দেশের মধ্যে সবচেয়ে দুর্নীতিগ্রস্থ দেশের তালিকায় বাংলাদেশ দ্বিতীয়। ১৫ পয়েন্ট নিয়ে বাংলাদেশের উপর রয়েছে কেবল আফগানিস্তান। আর এই অঞ্চলে সবচেয়ে কম দুর্নীতিগ্রস্থ দেশের নাম ভুটান।

টিআই সূচক ২০১৭ অনুযায়ী ৮৯ স্কোর পেয়ে কম দুর্নীতিগ্রস্থ তালিকার শীর্ষে অবস্থান করছে নিউজিল্যান্ড। ৮৮ স্কোর পেয়ে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ডেনমার্ক; এবং তৃতীয় স্থানে যৌথভাবে রয়েছে ফিনল্যান্ড, নরওয়ে ও সুইজারল্যান্ড যাদের স্কোর ৮৫। ৯ স্কোর পেয়ে ২০১৭ সালে তালিকার সর্বনিম্নে অবস্থান করছে সোমালিয়া। ১২ স্কোর পেয়ে তালিকার নিম্নক্রম অনুযায়ী দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে দক্ষিণ সুদান  এবং ১৪ স্কোর পেয়ে তৃতীয় সর্বনিম্ন অবস্থানে রয়েছে সিরিয়া। এবছর একই স্কোর পেয়ে বাংলাদেশের সাথে তালিকার নিম্নক্রম অনুযায়ী সতেরতম অবস্থানে সম্মিলিতভাবে আরও রয়েছে গুয়াতেমালা, কেনিয়া, লেবানন ও মৌরিতানিয়া।