ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে সম্পাদকদের আশ্বস্ত করলেন আইনমন্ত্রী


, | Published: 06:30 PM, April 19, 2018

IMG

প্রস্তাবিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ৬টি ধারা নিয়ে আপত্তি ও উদ্বেগ জানিয়েছে সম্পাদক পরিষদ। এসব আপত্তির সঙ্গে অনেকাংশে একমত আইনমন্ত্রীও। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে আইন এবং তথ্য ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের  সঙ্গে বৈঠকে সম্পাদক পরিষদ তাদের আপত্তিগুলো তুলে ধরে।

গত ৯ই এপ্রিল ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বিল আকারে উত্থাপন হয় সংসদে। তারপর তা পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে ডাক, টেলিযোগযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির কাছে। ৪ সপ্তাহের মধ্যে এ ব্যাপারে সংসদে রিপোর্ট দেয়ার কথা রয়েছে কমিটির।

তথ্য প্রযুক্তি আইনের বিতর্কিত ৫৭ ধারার বদলে নতুন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ৩২ ধারাসহ বেশ কয়েকটি ধারা নিয়ে আপত্তি রয়েছে সাংবাদিকসহ বিভিন্ন মহলের। সবচেয়ে বেশি আপত্তি ৩২ ধারা নিয়ে। কারণ এতে গোপনে তথ্য সংগ্রহকে ডিজিটাল গুপ্তচরবৃত্তি আখ্যায়িত করে ১৪ বছর পর্যন্ত  সাজা এবং সর্বোচ্চ এক কোটি টাকা জরিমানার বিধান রয়েছে।

এমন অবস্থায় দেশের জাতীয় দৈনিকগুলোর সম্পাদকদের সংগঠন সম্পাদক পরিষদ বৃহস্পতিবার আইনমন্ত্রী এবং আইসিটি মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করে। তারা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ৬টি ধারা নিয়ে তাদের আপত্তি ও উদ্বেগ তুলে ধরেন।

তাদের আপত্তির সঙ্গে অনেকাংশে একমত প্রকাশ করেন আইনমন্ত্রী। তবে আইনমন্ত্রী দাবি করেন সাইবার অপরাধ নিয়ন্ত্রণে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করা হচ্ছে। বাক-স্বাধীনতা বা স্বাধীন সাংবাদিকতার অধিকার হরণ করার জন্য নয়। আইনমন্ত্রী জানান, আইসিটি মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি যেন আইনটি নিয়ে সম্পাদক পরিষদের সঙ্গে আলোচনা করে, কমিটিকে সে প্রস্তাব দেয়া হবে।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনটি গ্রহণযোগ্য ও যুগোপযোগী  হবে, আশা প্রকাশ করেন আইনমন্ত্রী।