এবার বাসের চাপায় পা হারালেন এক তরুণী


, | Published: 03:27 PM, April 21, 2018

IMG

ঢাকায় দুই বাসের রেষারেষিতে হাত হারিয়ে কলেজছাত্র রাজীবের মৃত্যু সপ্তাহ না পেরোতেই বাসের চাপায় পা হারালেন আরেক তরুণী। গতরাতে বিআরটিসি একটি বাসের চাপায় ঘটনাস্থলেই বিচ্ছিন্ন হয় তরুণীর ডান পা। পরে তাকে পঙ্গু হাসপাতালে আনা হলে অস্ত্রোপচার করে রক্ত বন্ধ করা হয়। তবে তার অবস্থা আশঙ্কামুক্ত কিনা তা জানতে সময় লাগবে আরও ৭২ ঘণ্টা।

রোজিনা বর্ণনা করছিলেন দুর্ঘটনার সময়টি। সৃষ্টিকর্তার দেয়া হাতটি আছে ঠিকই কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে দেহ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়েছে পা টি। এখন শুধুই ব্যথার যন্ত্রণা নিয়ে হাসপাতালে কাতরাচ্ছে রোজিনা আক্তার।

শুক্রবার রাতে মহাখালী থেকে কাকলীমুখী বিআরটিসির একটি দোতলা বাস প্রথমে তাকে ধাক্কা দেয়, পরে চলে যায় তার পায়ের ওপর দিয়ে। ঘটনাস্থলেই হাটু থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় রোজিনার পা। পরে সেখান থেকে তাকে রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অপরদিকে মেয়ের দুর্ঘটনার খবর পেয়ে পাগল প্রায় তার বাবা। নিকেতনে এক বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করে রোজিনা। ছয় বোন আর এক ভাই এর সংসারের বেশিরভাগই চলত তার আয়ের টাকায়। মেয়ের এই অবস্থার জন্য যারা দায়ী তাদের শাস্তির দাবি রোজিনার বাবার।

আর ডাক্তাররা বলছেন এখনও পুরোপুরি আশঙ্কা মুক্ত নয় রোজিনা। পা ছাড়া শরীরের অন্য কোন সমস্যা হয়েছে কিনা তা জানতে সময় লাগবে আরও ৭২ ঘণ্টা।

বেপরোয়া পরিবহন ব্যবস্থার কারণে প্রতি নিয়তই বলি হচ্ছে কেউ না কেউ । তারপরেও সচেতন হচ্ছেনা কোন পক্ষই।