ইতিহাসের পাতায় অনন্য দেশম


, | Published: 06:50 PM, July 16, 2018

IMG

ইতিহাস গড়লেন ফ্রান্সের কোচ দিদিয়ের দেশম। দ্বিতীয়বার শিরোপা ঘরে তুলল ফ্রান্স। এতেই জার্মান কিংবদন্তী ফ্রাঞ্জ বেকেনবাওয়ারের পাশে নিজের নাম লেখালেন তিনি। বেকেনবাওয়ারের পর দ্বিতীয় অধিনায়ক ও কোচ হিসেবে হাতে তুললেন বিশ্বকাপ শিরোপা। তবে ফুটবলার ও কোচ হিসেবে প্রথম বিশ্বকাপ জেতেন ব্রাজিলেরে মারিও জাগালো

দিদিয়ের দেশঁ, আরো একবার নিজের নাম স্বহস্থে লিখলেন ইতিহাসের সোনালী পৃষ্ঠায়। শিষ্যদের অম্লান অর্জনে নায়ক থেকে বনে গেলেন মহা নায়ক। জার্মান কিবদন্তী ফ্যাঞ্জ বেকেনবাওয়ারের পর তিনি দ্বিতীয় ব্যক্তি, অধিনায়ক ও কোচ হিসেবে দেশকে উপহার দিলেন বিশ্বকাপের এই সোনার ট্রফিটি।

১৯৯৮ বিশ্বকাপে প্রথমবার ফাইনালে ওঠে ফ্রান্স। ব্রাজিলকে ৩-০ গোলে হারিয়ে শিরোপাও জেতে ফরাসীরা। সেই সাফ্যলের নেতৃত্বে ছিলেন বর্তমান কোচ দিদিয়ের দেশঁ। ঠিক ২০ বছরের মাথায় আবারো চ্যাম্পিয়ন লে ব্লুজরা। এবার ৫০ ছুঁই ছুঁই দেশঁ সফলাতার সাথে পালন করেছেন দ্রোনাচার্যের ভূমিকা। মাতৃভূমিকে আবারো উপহার দিলের বিশ্বসেরার মুকুট।

১৯৭৪ সালে জার্মানির দ্বিতীয় শিরোপা জয়ী দলের অধিনায়ক ছিলেন ফ্রাঞ্জ বেকেনবাওয়ার। ঠিক ১৬ বছর পর ১৯৯০ বিশ্বকাপে তৃতীয় শিরোপা জেতে জার্মানি। সেবার নিজ দেশের ডাগআউট সামলানোর দায়িত্বে ছিলেন বেকেনবাওয়ার।

যদিও খেলোয়াড় ও কোচ হিসেবে বিশ্বকাপ জেতার প্রথম নজির স্থাপন করেন ব্রাজিলের মারিও জাগালো। ১৯৫৮ ও ১৯৬২’র বিশ্বকাপ জেতেন এই সেলেসাও ফরোয়ার্ড। পরে ১৯৭০ সালে পেলের শেষ বিশ্বকাপে তিনি শিরোপা জেতেন নিজ দেশের কোচ হিসেবে।

বেকেনবাওয়ারের কোচ-অধিনায়ক চক্রপূরণের ২৮ বছরের মাথায় এই বৃত্ত সম্পূর্ণ করে তাঁর পাশে বসলেন দিদিয়ের দেশঁ। এ যেন সত্যিই এক অনন্য কীর্তি।