নেলসন ম্যান্ডেলার শততম জন্মদিন


, | Published: 06:10 PM, July 18, 2018

IMG

আজ ১৮ জুলাই। বর্ণবাদ বিরোধী অবিসংবাদিত নেতা নেলসন ম্যান্ডেলার শততম জন্মদিন। শ্রদ্ধা সেই মানুষটির জন্য, যার জীবন-সংগ্রাম বর্ণের বৈষম্য দূর করে, কালো মানুষের পৃথিবীতে জ্বেলেছিলো দিনের আলো।

এই পৃথিবীটা কেবল সাদা মানুষের নয়। পৃথিবীটা বহুরঙা মানুষের। মানুষে মানুষে রঙে যে বৈচিত্র্য তা আদতে পৃথিবীর সৌন্দর্য্য।‘বৈচিত্র্য আর সাম্যের এই সুমহান বাণী নিয়ে জীবনভর লড়াই করে গেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদবিরোধী নেতা নেলসন ম্যান্ডেলা। বিশ্ববাসীর কাছে যিনি প্রিয় ‘মাদিবা’ নামে পরিচিত।

ম্যান্ডেলা শুধু দক্ষিণ আফ্রিকার নেতা নন। বিশ্বজনীন তিনি, সারা দুনিয়ার মানুষের নেতা। তার আদর্শকে ধারণ করে সামনে এগিয়ে যাওয়ার স্বপ্ন দেখে সংগ্রামশীল মানুষ। ১৯১৮ সালের ১৮ জুলাই জন্মগ্রহণ করেন এই মহান ব্যক্তি।

বর্ণবাদের বিরুদ্ধে আন্দোলন, সংগ্রাম আর মানবমুক্তির বন্ধুর পথে আজীবন হেঁটেছেন ম্যান্ডেলা। বর্ণবাদের বিরুদ্ধে, মানুষের অধিকার আদায়ে অসহযোগ আন্দোলনে নেতৃত্ব দেন। তবে সফলতা আসেনি। এরমধ্যে শার্পভিল শহরে আন্দোলনরত শ্রমিকদের গুলি করে হত্যা করা হয়। এ  ঘটনা তাকে সশস্ত্র সংগ্রামে উদ্ভুদ্ব করে। ম্যান্ডেলা ঝাঁপিয়ে পড়েন বর্নবাদ বিরোধী লড়াইয়ে।

১৯৬৩ সালে কয়েকজন সহযোদ্ধার সঙ্গে গ্রেপ্তার হন ম্যান্ডেলা। আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে বলেছিলেন : হোয়াইট ডমিনেশন, ব্লাক ডমিনেশনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মৃত্যুবরণ করতেও প্রস্তুত তিনি।

রাষ্ট্রদ্রোহের অপরাধে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত ম্যান্ডেলার ২৭ বছর কেটে যায রবেন আইল্যান্ডে। কারাগারে থেকেই বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনের নেতৃত্ব দেন তিনি। ১৯৮৫ সালে সশস্ত্র সংগ্রাম ছাড়ার শর্তে মুক্তির সুযোগ থাকলেও, তা প্রত্যাখান করেন। অবশেষে ১৯৯০ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি কারাগার থেকে মুক্তি পান।

১৯৯৪ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। ১৯৯৯ সালে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরে দাড়ান। আস্তে আস্তে তিনি রাজনীতি থেকে সরে দাড়ান। ২০১৩ সালের ৫ ডিসেম্বর ৯৫ বছর বয়সে পৃথিবী থেকে বিদায় নেন ম্যান্ডেলা।