নতুন যুগের সুচনায় বাংলাদেশের পাট


, | Published: 05:44 PM, July 23, 2018

IMG

নতুন যুগের সুচনা করেছে বাংলাদেশের পাট। সোনালী আঁশ ফিরে পেতে চলেছে হারানো গৌরব। সময় এখন সম্ভাবনার সবটুকু ব্যবহারের।

বাংলাদেশের কৃষি উৎপাদন  এবং রপ্তানিতে গর্ব করার যত বিষয়, এরমধ্যে পাট এগিয়ে। বাংলার সোনালী আঁশ; সারা বিশ্বে কেবল সমাদরই পায়না, দেশের প্রতিনিধিত্ব করে বিশ্ব বাজারে।

২০০২ সালে আদমজী জুট মিল বন্ধ ঘোষনার মধ্যে দিয়ে অন্ধকারে প্রবেশ করেছিল দেশের পাট খাত। সেই অন্ধকার চিরে আলোর দিশা ২০১০ সালে পাটের জিন রহস্য আবিস্কার। পাটজাত পণ্যকে বিবেচনায়  নেয়া হয় অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত খাত হিসেবে।

গত ৮ বছরে পাটের সেই পথচলায় ছিলো অনেক চড়াই উৎরাই। প্রতিযোগিতার বিশ্বে এখন হারানো গৌরব ফিরে পাবার অপেক্ষায় বাংলাদেশ।

পাট পণ্য যারা বিশ্ব বাজার তুলে দেন,  তারা বলছেন, এখনো এ খাতে যে অপার সম্ভাবনা, এর অনেকটাই ব্যবহার করতে পারছি না আমরা।

রপ্তানিকারকদের মতে, সরকারের উচ্চ পর্যায়ের পাট খাতকে এগিয়ে নেয়ার সদিচ্ছার বিপরীতে বাস্তবায়ন পর্যায়ের জটিলতা নিরসন করা গেলে, শতভাগ দেশি এ খাত পেছনে ফেলবে যে কোন রপ্তানি খাতকে।